রহস্যের নেই শেষ, হাজার বছর আগের বিমান

Posted on June 6, 2011

0


আমরা জানি মানুষ প্রথম আকাশে উড়তে পারে ১৭৮০ সালে বেলুন আবিষ্কারের মাধ্যমে।১৯০৩ সালে রাইটরা আবিষ্কার করে উড়োজাহাজ।
যা মানুষের শূন্যে উড়ার স্বপ্নকে আরও সহজ করে তুলে। আমাদের জানা ইতিহাস তাই বলে।কিন্তু পৃথিবীতে এমন কিছু রহস্যময় নিদর্শন পাওয়া যায় যার ফলে আমরা ধারনা করতে পারি আমাদের জানা ইতিহাসের অনেক আগেই মানুষ উড়তে পারত।আমি প্রতিটি ধর্মর উপর সম্পূর্ণ শ্রদ্ধা রেখেই বলতে চাই ধর্মগ্রন্থ বা পুরাণে এমন অসংখ্য কাহিনীর বর্ণনা দেওয়া আছে যা যদি সত্যি হয় তাহলে এটা নিশ্চিত করেই বলা যায় আরও হাজার হাজার বছর আগেই মানুষ বিমান বা এজাতীয় কোনও উড্ডয়ন যন্ত্রের মাধ্যমে উড়তে পারত।উদাহরনস্বরুপ বলা যায় হিন্দু দেবতাদের রথ, মুসলমানদের বোরাক বা বিভিন্ন পুরাণে বর্ণিত দেবতাদের অগ্নিরথের কথা।এগুলো কিন্তু স্পষ্টতই উড়ার প্রমাণই দেয়। কারণ আপনি আর যাই করেন না কেন অলৌকিক এমন কিছু বিশ্বাস করতে পারেন না যার আসলেই কোনও ভিত্তি বা ব্যাখ্যা দেওয়া একেবারেই অসম্ভব।


এবার আসুন আমরা এমন কিছু নমুনা দেখি যা দেখে মনে হতে পারে আসলেই প্রাচীনকালে বিমানজাতীয় কিছু ছিল।

মিশরের বিমান-
নীচের মডেলটি 

১৮৯৮ সালে মিশরের সাক্কুয়ারার একটি মন্দির থেকে আবিষ্কার করা হয়। কাঠের এ মডেলটি লম্বায় ৫.৬ ইঞ্চি এবং এর পাখার দৈর্ঘ্য ৭.২ ইঞ্চি।পরীক্ষার মাধ্যমে জানা যায় এটি তৈরি করা হয়েছিল আনুমানিক ২০০ খ্রি:পুর্বাব্দে।বর্তমানে এটি রক্ষিত আছে কায়রো জাদুঘরে।

[……Read Full Story…..]

Advertisements