বিস্ময়-বড়ি

Posted on July 5, 2011

0


নিয়ম করে ফলমূল ও শাকসবজি খাওয়া যাঁদের একদমই হয় না, তাঁদের জন্য সুখবর। বাজারে এসেছে এমন এক ধরনের ‘বিস্ময় বড়ি’, যা আপনাকে দেবে এসব উপাদানের ঘাটতি পূরণে কার্যকরী ফল। পিলটির নাম দেওয়া হয়েছে ‘জুস প্লাস’। এর আবিষ্কর্তা যুক্তরাষ্ট্রের ভেষজ কম্পানি নেচারাল অলটারনেটিভ ইন্টারন্যাশনাল। যুক্তরাষ্ট্রের সেলিব্রিটি মহল এরই মধ্যে পিলটি সাদরে বরণ করে নিয়েছে। অভিযাত্রী দলগুলোর কাছে এটি জনপ্রিয় হয়েছে। জার্মানির অলিম্পিক খেলোয়াড়দের শারীরিক চাহিদার ঘাটতি পূরণে সেব্য তালিকায় রয়েছে পিলটির নাম। যুক্তরাষ্ট্র জয় করে এবার ইউরোপের বাজারে পাওয়া যাচ্ছে ‘জুস প্লাস’। প্রাথমিকভাবে যুক্তরাজ্যে শুরু হয়েছে পিলটির বাজারজাতকরণ প্রক্রিয়া।

প্রকৃত অর্থে আর সব মাল্টিভিটামিন সাপ্লিমেন্টের মতো হলেও ‘জুস প্লাস’-এর সবচেয়ে বড় গুণ হচ্ছে_টানা পাঁচ দিন ফলমূল ও শাকসবজি না খেলে শরীরে যে ঘাটতি তৈরি হয়, তা পূরণ হয়ে যাবে এর একটি মাত্র পিলে। ব্রিটেনে এর সরবরাহকারী জাস্টিন টড বলেছেন, মূলত কাজের চাপে সারাক্ষণ যাঁরা ব্যস্ত থাকেন, নিয়ম মেনে খাবার খেতে না পারার কারণে ভিটামিন ও খনিজসংক্রান্ত নানা শারীরিক সমস্যায় যাঁরা ভোগেন_তাঁদের শরীরের ঘাটতি পূরণের জন্য এটি হবে আদর্শ সহায়ক বটিকা। তবে এই পিল কোনোভাবেই প্রাকৃতিকভাবে উৎপন্ন ফলমূল বা শাকসবজির সরাসরি বিকল্প নয়। তিনি জানান, প্রাথমিকভাবে যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে দুটি ভিন্ন স্বাদে এই পিল পাওয়া যাচ্ছে। এর একটি হচ্ছে অরচাড ব্লেন্ড, অন্যটি গার্ডেন ব্লেন্ড। নামকরণেই পরিষ্কার, প্রথমটি ফলমূলের নির্যাস থেকে তৈরি আর দ্বিতীয়টির উপকরণ নানা জাতের শাকসবজি। অরচাড ব্লেন্ডের উপাদানের তালিকায় রয়েছে আপেল, কমলা, আনারস, ক্রানবেরি (এক ধরনের লাল ফল), পিচফল, অ্যাকেরোলা, চেরিফল ও পেঁপে। এসব ফলের নির্যাস থেকে তৈরি প্রতিটি পিলে পাওয়া যাবে ভিটামিন-এ ১১০ শতাংশ, ভিটামিন-সি ৩২০ শতাংশ, ভিটামিন-ই ৭০ শতাংশ, ফোলেট ৩৫ শতাংশ, ক্যালসিয়াম ২ শতাংশ ও আয়রন ২ শতাংশ। অন্যদিকে গার্ডেন ব্লেন্ডের ‘জুস প্লাস’ বটিকায় উপাদান হিসেবে আছে গাজর, পার্সলে, বিট, ক্যালে, ব্রোকোলি, বাঁধাকপি, পালং শাক, টমেটো, বার্লি ও যবের গুঁড়া। এর একটি পিল সেবন করলে পাওয়া যাবে ভিটামিন-এ ১৪০ শতাংশ, ভিটামিন-সি ৭০ শতাংশ, ভিটামিন-ই ৮০ শতাংশ, ফোলেট ৭০ শতাংশ, ক্যালসিয়াম ৪ শতাংশ, আয়রন ২ শতাংশ। উৎপাদনকারী সংস্থার দাবি, এই পিল পুষ্টির ঘাটতি পূরণেও সক্ষম, কারণ এতে আছে ১৭ ধরনের সবুজ শাকসবজি, ফল ও খাদ্যকণার সমাবেশ। তারা আরও বলেছে, শরীরে উচ্চমাত্রার চর্বি রোধেও পিলটি সহায়ক।
তবে নতুন আবিষ্কার হওয়ায় পিলটির দামও বেশ চড়া। যুক্তরাষ্ট্র বা যুক্তরাজ্যপ্রবাসী আত্মীয়, বন্ধুবান্ধবদের কাছে পিলটি সংগ্রহ করে দেওয়ার অনুরোধ করার আগে এর দামটি অবশ্যই জেনে রাখুন। ইংল্যান্ডে এই পিলের এক মাসের কোর্সের দাম হচ্ছে ৩৫ দশমিক ৫০ পাউন্ড। তবে এক মাসের কোর্সের কোনো ওষুধ বিক্রি হয় না, সরবরাহকারীদের কাছ থেকে কিনতে হবে একসঙ্গে চার মাসের কোর্সের ওষুধ; বাংলাদেশি মুদ্রায় যার দাম পড়বে সাড়ে ষোলো হাজার টাকার কিছু বেশি। সূত্র : ডেইলি মেইল অনলাইন।
Advertisements