আসছে কথক গাড়ি!

Posted on July 14, 2011

0


কল্পনার আয়েশ যেন আর থাকছে না। মাঝেমধ্যে আকাশ-কুসুম কল্পনা করতে কার না ভালো লাগে! আমাদের এ বাংলা অঞ্চলের মানুষের কাছে কল্পনা তো এক রকমের আরাম-আয়েশ। কল্পনাবিলাস বা কল্পনাবিলাসী শব্দটা তো আর এমনিতে আসেনি! কিন্তু সেই আয়েশগুলো এক এক করে হারিয়ে যেতে বসেছে। কারণ বিজ্ঞান যে একের পর এক কল্পনাকে বাস্তবে রূপ দিয়ে চলছে।
গাড়ি কথা বলবে, কথক-গাড়ি! এটা কল্পনা করতেই আমাদের ভালো লাগে। কিন্তু বিজ্ঞানীরা বলছেন, আর বেশি অপেক্ষা করতে হবে না। শিগগিরই তাঁরা বাজারে নিয়ে আসছেন ‘কথা বলা গাড়ি বা কথক-গাড়ি’।
সম্প্রতি ইতালির রোলোগনা বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল বিজ্ঞানী এমন একটি কম্পিউটার সফটওয়্যার তৈরির কথা জানিয়েছেন, যার মাধ্যমে গাড়ি কথা বলবে। রাস্তায় চলাচলরত একটি গাড়ি অন্য গাড়ির সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবে। বিজ্ঞানীরা বলছেন, শুধু কথাই বলবে না, এ প্রযুক্তি প্রয়োগের কারণে মহাসড়কের যানজটও হ্রাস পাবে প্রায় ৪০ শতাংশ।
বিজ্ঞানীরা জানান, এ ধরনের সফটওয়্যার আগেও তৈরি করা হয়েছে। তবে বর্তমান সফটওয়্যারটি সড়কের এক কিলোমিটার দূরে কী হচ্ছে, তা আগেই জানিয়ে দেবে। কোনো দুর্ঘটনার আশঙ্কা দেখা দিলে আগাম সংকেত দিতে থাকবে এবং গাড়িতে থাকা বিশেষ সেন্সরের মাধ্যমে গাড়ির গতি কমাবে। এমনকি প্রয়োজনে গাড়ি বন্ধ করে দেবে। বিজ্ঞানীরা আরো জানান, শিগগিরই সড়কে এ সফটওয়্যারের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে। ২০১১ সালের আগস্টে এ নিয়ে একটি রোড ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। যুক্তরাষ্ট্রের মোটরওয়েস ও জাপানের গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টয়োটার সঙ্গে এ-সংক্রান্ত একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।
এ গবেষণা আরো জানা যায়, বিজ্ঞানীরা রাস্তায় চলমান সব গাড়িতে ওয়াই-ফাই ইন্টারনেট প্রযুক্তির মাধ্যমে একটি সংযোগ করবেন। অথবা স্মার্ট ফোনে ওই সফটওয়্যার ডাউনলোড করার মাধ্যমেও নেটওয়ার্কের অন্তর্ভুক্ত হওয়া যাবে।
গবেষক দলের প্রধান মার্কো রোসিটি জানান, তাঁদের এ গবেষণা সমাজে ব্যাপক সাড়া ফেলবে। বিশেষ করে এর ব্যাপক প্রভাব পড়বে মানুষের জীবনযাপন ও সামাজিক ক্ষেত্রে। তিনি আরো জানান, তাঁরা নানা ধরনের যন্ত্র তৈরি করেছেন। এর মধ্যে রয়েছে বিশেষ রাডার যন্ত্র। এ যন্ত্র সড়কের সামনে কোনো ধরনের বাধা বা দুর্ঘটনার আশঙ্কা থাকলে তা আগে থেকে সতর্ক সংকেত দিয়ে জানিয়ে দেবে। গাড়ি দুটি আগে থেকেই নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ স্থাপন করবে। সড়কের এক কিলোমিটার আগে কী হচ্ছে, তা আগাম জানিয়ে দেবে। বর্তমান যে প্রযুক্তি রয়েছে, এর মাধ্যমে বিষয়টি জানা যায়। তবে তা জানা যায় যখন দুটি গাড়ি একেবারেই সম্মুখে আসে তখন। সূত্র : বিবিসি অনলাইন।